Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

-: সমবায় বিভাগের সিটিজেন চার্টার :-


                  বাংলাদেশ সরকারের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের আওতাধীন সমবায় অধিদপ্তর গণমানুষের সেবা নিশ্চিত করার জন্য বর্তমান সরকারের উদ্দেশ্য পূরণকল্পে একটি যুগোপযোগী সিটিজেন চার্টার প্রণয়ন করেছে। সিটিজেন চার্টার অনুযায়ী সাধারণ জনগণ সমবায় বিভাগ থেকে নিম্নলিখিত সুবিধাদি পেয়ে থাকেঃ

নিবন্ধন ও উপ-আইন সংশোধনঃ

             বৈধ উপায়ে নিজেদের আর্থ-সামাজিক অবস্থা উন্নয়নের জন্য ন্যূনতম ২০ (কুড়ি) একক ব্যক্তি সমন্বয়ে গঠিত প্রাথমিক সমবায় সমিতির নিবন্ধন প্রদান করা হয়ে থাকে।
        সমবায় সমিতি নিবন্ধনের সময় সমবায় সমিতি পরিচালনার সুনির্দিষ্ট বিধানাবলী সমন্বিত উপ-আইন নিবন্ধন করা হয় এবং পরবর্তীতে প্রয়োজনবোধে উপ-আইনের সংশোধনী নিবন্ধন করা হয়।
         সরকারী কর্মসূচীর আওতায় বিত্তহীন, ভূমিহীন এবং আশ্রয়হীনদের দারিদ্র বিমোচনের লক্ষে গঠিত প্রাথমিক সমবায় সমিতি নিবন্ধনের জন্য ৫০ (পঞ্চাশ) টাকা এবং অন্যান্য প্রাথমিক সমবায় সমিতি নিবন্ধনের জন্য ৩০০ (তিনশত) টাকা নিবন্ধন ফি জমা দিতে হয়।
দারিদ্র বিমোচনের লক্ষে স্বেচ্ছায় বা সরকারী কর্মসূচীর আওতায় গঠিত প্রাথমিক সমবায় সমিতি নিবন্ধনের জন্য কমপক্ষে তিন হাজার টাকা, ক্রেডিট কো-অপারেটিভ সোসাইটি নিবন্ধনের জন্য কমপক্ষে এক কোটি টাকা এবং অন্যান্য প্রাথমিক সমবায় সমিতি নিবন্ধনের জন্য কমপক্ষে বিশ হাজার টাকা পরিশোধিত শেয়ার মূলধন থাকতে হয়।


ব্যবস্থাপনা, অডিট, পরিদর্শন, বিরোধ নিষ্পত্তি ও অবসায়নঃ

       সমিতির ব্যবস্থাপনা গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত কমিটি কর্তৃক পরিচালিত হয়। কোন সমবায় সমিতি যথাসময়ে নির্বাচন করতে ব্যর্থ হলে জেলা সমবায় অফিসার আইনের আওতায় অমত্মর্বর্তী ব্যবস্থাপনা কমিটি নিয়োগ করেন।
       জেলা সমবায় অফিসার কর্তৃক ক্ষমতাপ্রাপ্ত কোন কর্মচারী বা ব্যক্তি দ্বারা প্রাথমিক সমিতির ব্যবস্থাপনা ও আর্থিক কার্যক্রমের উপর বার্ষিক নিরক্ষা সম্পাদন করা হয়।
     সমিতিতে সংগঠিত যে কোন অনিয়ম জেলা সমবায় অফিসার পরিদর্শন কিংবা তদন্তের মাধ্যমে নিষ্পত্তি করেন। প্রাথমিক সমিতির নির্বাচনসহ যে কোন সৃষ্ট বিরোধ জেলা সমবায় অফিসারের নিকট দায়ের করা হলে তিনি বা নিযুক্ত সালিশকারী ন্যায় বিচার, সমতা ও সুবিবেচনা প্রসূতভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে রায় প্রদান করেন। রায়ে কেউ সংÿুব্ধ হলে বিভাগীয় সমবায় দপ্তরের উপ-নিবন্ধক (বিচার) এর নিকট আপীল করতে পারেন। বিরোধ এবং আপীলের সাথে ১০০ (একশত) টাকার কোর্ট ফি সংযুক্ত করতে হয়।
      প্রাথমিক সমিতি অকার্যকর হলে কিংবা সদস্যগণ সমিতি পরিচালনায় অনাগ্রহী হলে জেলা সমবায় অফিসার সমিতিকে  অবসায়ন করতে পারেন। আবার সদস্যদের আগ্রহের কারণে অবসায়ন আদেশ প্রত্যাহার করতে পারেন।


প্রশিক্ষণঃ

            কুমিল্লা শহরের উপকণ্ঠে কোটবাড়ীতে অবস্থিত দেশের শীর্ষ সমবায় প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সমবায় একাডেমী এবং মুক্তাগাছা আঞ্চলিক সমবায় প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে সমবায় সমিতির সদস্যদের প্রশিক্ষণ সেবা প্রদান করা হয়ে থাকে।
            জেলা সমবায় কার্যালয়ের ভ্রাম্যমান প্রশিক্ষণ ইউনিট সমিতিতে গিয়ে সদস্য প্রশিক্ষণ দিয়ে থাকেন।
সমবায় অধিদপ্তরের ঢাকাস্থ সদর কার্যালয়, বাংলাদেশ সমবায় একাডেমী ও মুক্তাগাছা আঞ্চলিক সমবায় প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে অবস্থিত মোট ০৩টি/০২টি অত্যাধুনক কম্পিউটার ল্যাব এর মাধ্যমে সদস্য ও সমবায় অধিদপ্তরের কর্মকর্তা/কর্মচারীদের আধুনিক তথ্য প্রযুক্তিগত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়ে থাকে।


         কোন অভিযোগ থাকলে জেলা সমবায় অফিসারের নিকট দাখিল করলে তা নিষ্পত্তি করা হয়ে থাকে।